সুলতানা রাজিয়া সম্পর্কে একটি টীকা লেখো | Short Notes on Sultana Razia


সুলতানা রাজিয়া | রাজিয়া ব্যর্থ হয়েছিলেন কেন | রাজিয়ার ব্যর্থতার কারণ


ইলতুৎমিসের জীবদ্দশাতেই তাঁর জ্যেষ্ঠ পুত্র নাসিরউদ্দিনের মৃত্যু হয়। তাঁর অন্যান্য পুত্ররা কেউই শাসনকার্যের উপযুক্ত ছিলেন না। এই কারণে তিনি তাঁর কন্যা রাজিয়া-কে তাঁর সিংহাসনের উত্তরাধিকারিণী মনোনীত করেন এবং আমীর ওমরাহদের দ্বারা তা অনুমোদন করিয়ে নেন। বলা বাহুল্য, এই সময় তাঁরা একজন নারীর কর্তৃত্ব মেনে নিতে রাজী ছিলেন না এবং এই কারণে ইলতুৎমিসের মৃত্যুর পর তাঁরা তাঁর পুত্র রুকন্‌উদ্দিন ফিরোজ-কে সিংহাসনে বসান। দুর্বলচিত্ত ও অপদার্থ এই সম্রাটের শাসনে সাম্রাজ্যের অভ্যন্তরে নানা স্থানে বিদ্রোহ দেখা দেয়। শেষ পর্যন্ত দিল্লীর একদল ওমরাহের সমর্থন নিয়ে সুলতানা রাজিয়া (১২৩৬–৪০ খ্রিঃ) সিংহাসনে বসেন। 


সুলতান রাজিয়াই হলেন একমাত্র নারী যিনি দিল্লীর সিংহাসনে আরোহণ করেন। তিনি অতি সুদক্ষা নারী ছিলেন। শাসনকার্য পরিচালনা, যুদ্ধবিদ্যা, দয়া-দাক্ষিণ্য সবদিকেই তিনি কৃতী ছিলেন। অবগুন্ঠন ত্যাগ করে পুরুষের পোশাকে সজ্জিত হয়ে তিনি প্রকাশ্য দরবারে উপস্থিত হতেন—এমনকি অশ্বারোহণ করতেন, শিকারে যেতেন এবং যুদ্ধক্ষেত্রে সৈন্য পরিচালনা করতেন। তাঁর আমলেই সর্বপ্রথম রাজতন্ত্রের সঙ্গে তুর্কী অভিজাতদের ক্ষমতার লড়াই শুরু হয়। এই অভিজাতবর্গ ‘চল্লিশ চক্র’ বা ‘বন্দেগান্-ই-চাহেলাগান্’ নামে পরিচিত ছিল। এই অভিজাতবর্গই সকল রাজনৈতিক ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণ করত। ইলতুৎমিস্-ও এঁদের শ্রদ্ধার চোখে দেখতেন।  


সুলতানা রাজিয়া প্রথম থেকে এঁদের ক্ষমতা খর্ব করতে উদ্যোগী হন। সরকারী পদে তিনি অতুর্কীদের নিয়োগ করতে থাকেন এবং নিজস্ব একটি দল গড়ে তুলতে সচেষ্ট হন। এই উদ্দেশ্যে ইয়াকুৎ খাঁ নামে জনৈক হাবসীর প্রতি তিনি অতিরিক্ত দাক্ষিণ্য প্রদর্শন করতে থাকেন। এই সব নানা কারণে তুর্কী অভিজাতবর্গ তাঁর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে এবং ইলতুৎমিসের অপর পুত্র মুইজউদ্দিন বাহরাম-কে সিংহাসনে বসায়। বিদ্রোহীদের নেতা ছিলেন সরহিন্দের শাসনকর্তা ইখতিয়ারউদ্দিন আলতুনিয়া। রাজিয়া তাঁর হস্তে পরাজিত ও বন্দী হন। কূটকৌশলী রাজিয়া বিদ্রোহীদের নেতা আলতুনিয়াকে বিবাহ করে যুগ্মভাবে দিল্লী অভিমুখে অগ্রসর হন, কিন্তু পথিমধ্যে মুইজউদ্দিন বাহরামের সেনাবাহিনীর হস্তে পরাজিত হন। এই দুঃসময়ে তাঁদের নিজস্ব সেনাবাহিনীও তাঁদের পরিত্যাগ করে। নিঃসঙ্গ অবস্থায় পথে দস্যুর হাতে তাঁরা নিহত হন (১২৪০ খ্রিঃ)।


তথ্য সূত্র:

স্বদেশ পরিচয় |  জীবন মুখোপাধ্যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন
close