পানিপথের প্রথম যুদ্ধ সম্পর্কে একটি টীকা লেখো | First Battle of Panipat


টীকা: পানিপথের প্রথম যুদ্ধ (১৫২৬)।

ভূমিকা:

পানিপথের প্রথম যুদ্ধ (১৫২৬ খ্রি., ২১ এপ্রিল) ছিল ভারতে মোগল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার প্রথম পদক্ষেপ। পরবর্তীকালে ভারতে মোগল সাম্রাজ্যের ভিত্তিকে সুদৃঢ় করার ক্ষেত্রে এই যুদ্ধের ভূমিকা ছিল অপরিসীম।


প্রেক্ষাপট: বাবর প্রথমে ভারতে প্রবেশ করে পাঞ্জাবের অধিকর্তা দৌলত খাঁ লোদিকে পরাজিত করেন। তিনি মোগল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে দিল্লির দিকে অগ্রসর হন। এই সময় পানিপথের প্রান্তরে দিল্লির আফগান শাসক ইব্রাহিম লোদি তাঁকে বাধা দেন। ফলে উভয়ের মধ্যে (১৫২৬ খ্রিস্টাব্দের ২১ এপ্রিল) পানিপথের প্রথম যুদ্ধ বাধে।


যুদ্ধের ফলাফল: ১. পানিপথের প্রথম যুদ্ধে ইব্রাহিম লোদি পরাজিত হন। ২. ‘তুলঘুমা যুদ্ধরীতি’ (গোলন্দাজ বাহিনীর সঙ্গে ক্ষিপ্রগতিসম্পন্ন উজবেগি অশ্বারোহী বাহিনীর মিলিত আক্রমণ), রুমি যুদ্ধপদ্ধতি (সামনে গো-শকট বা ঠেলাগাড়ি দিয়ে কৃত্রিম প্রাচীর তৈরি করে তার পিছনে নির্মিত মাটির ঢিপির ওপর থেকে কামান দাগা)-র প্রয়োগ করে বাবর এই যুদ্ধে জয়ী হন ও দিল্লির সিংহাসনে মোগল সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করেন।


গুরুত্ব: পানিপথের প্রথম যুদ্ধ নানা কারণে গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়— ১. এই যুদ্ধে ইব্রাহিম লোদি পরাজিত হওয়ায় ভারতে লোদি বংশের শাসনক্ষমতা চিরতরে অবলুপ্ত হয়। ২. যুদ্ধে জয়লাভ করে বাবর ভারতে মোগল সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করেন। ৩. পানিপথের প্রথম যুদ্ধ জয়ের ফলে দিল্লি ও আগ্রা পর্যন্ত বিস্তীর্ণ অঞ্চল বাবরের অধীনস্থ হয়।  ৪. পানিপথের প্রথম যুদ্ধজয় বাবরকে ইব্রাহিম লোদির সঞ্চিত ধনদৌলত অধিকারের সুযোগ এনে দেয়। ফলে বাবরের আর্থিক সংকট অনেকটাই মেটে।

তথ্য সূত্র:

ইতিহাস শিক্ষক- অষ্টম শ্রেণী | জে মুখোপাধ্যায়।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন
close